হাফ প্যান্ট পরে জুতো পড়েই গণেশ মূর্তির উপরে শ্রাবন্তী , “নির্লজ্জ, হিন্দু বলে কটাক্ষ

ঈশ্বরের স্মরণেই পোস্ট করেছিলেন! কিন্তু হিতে হল বিপরীত। গণেশ মূর্তির ওপর বসে জুতো পরে বসেছিলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় , চরণ-যুগল যদিও মূর্তির নীচেই ছিল, তবে সমালোচকদের হাত থেকে রেহাই পাননি। “নির্লজ্জ, নিজেকে হিন্দু বলে পরিচয় দিও না”, উড়ে এল অজস্র কটাক্ষবাণ।

ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে একাধিকবার কটাক্ষের শিকার হয়েছেন। তৃতীয় বিয়ে, সম্পর্ক ভাঙা-গড়া নিয়ে কম কটাক্ষের শিকার হতে হয়নি শ্রাবন্তীকে। তারকা বলে সবসময়েই নেটিজেনদের আতসকাঁচের তলায় তাঁর সমস্ত কর্মকাণ্ড।

চুন থেকে পান খসলেই হল! রে-রে করে ওঠেন নেটদুনিয়ার নীতিপুলিশেরা। এবারও তার অন্যথা হল না। গণেশ মূর্তির ওপর জুতো পরে বসায় অভিনেত্রীর উপর বেজায় ক্ষেপে উঠলেন নেটজনতারা।

ঠিক কী হয়েছে? প্রকৃতির কোলে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। মঙ্গলবার দুপুর নাগাদ ছুটির আমেজে সেসব ছবিই শেয়ার করেছিলেন ইনস্টাগ্রামে। কোথাও অভিনেত্রীকে দেখা গেল কালো ড্রেস পরে দোলনার দড়ি ধরে হাসিমুখে পোজ দিতে।

আবার আরেক ছবিতে তাঁকে দেখা গেল গণেশমূর্তির কোলে বসে ক্যামেরার সামনে পোজ দিতে। আর দ্বিতীয় এই ছবিটি নিয়েই আপত্তি তুলেছেন নেটজনতার একাংশ। অতঃপর কমেন্টবক্সে ধেয়ে এল একের পর এক কটাক্ষ।

শ্রাবন্তীকে আক্রমণ করে কেউ বলছেন, “লজ্জাবোধ সব কিছু হারিয়ে গিয়েছে। জুতো পরে গণেশের ওপর বসে পড়েছো, নিজেকে হিন্দু বলে পরিচয় দিও না। বেহায়া মহিলা।” কেউ বা আবার বলেছেন, “শেষমেশ ধর্মীয় অবমাননাও করলে।” কারও মন্তব্য, “তুমি একদম ফালতু।” শুধু তাই নয়, অভিনেত্রীর শারীরিক গড়ন নিয়েও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি কেউ। লিখেছেন, “হাতি হাতি মিলে গেছে।”

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*