হাতে ধরা ইয়াব্বড় খড়্গ, ডাকাত সর্দার রঘুর হুংকার

হাতে ধরা ইয়াব্বড় খড়্গ। মাথায় লাল শালুর ফেট্টি। ডাকাত সর্দার রঘুর হুংকার। অন্ধকার রাতে ঝলসানো চাঁদ। টলমল জাহাজ। নদীর চড়ে অস্ত্রধারী ডাকাতদের উল্লাস।

সে কী ভয়ংকর কাণ্ড! আর ‘রঘু ডাকাত’ থুড়ি দেবের (Dev) সেই সিনেমার মোশন পোস্টার দেখেই দর্শকদের উন্মাদনা পৌঁছল তুঙ্গে।

ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে এক কিংবদন্তী ডাকাত সর্দারের বিপ্লবের কাহিনি বলবে এই ছবি। নেপথ্যে পরিচালক ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায় (Dhrubo Banerjee)। বাংলার পরতে পরতে লুকিয়ে থাকা অজানা রহস্য, ইতিহাস নিয়ে নাড়াচাড়া করতে ভালবাসেন তিনি।

আর সেই প্রেক্ষিতেই বাঙালির বুক চিতিয়ে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কাহিনি এবারও বড়পর্দায় তুলে ধরবেন তিনি। যেখানে বাংলার খড়্গহস্ত ডাকাত সম্প্রদায়ের সাহসিকতার সামনে স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল ইংরেজদের বন্দুকের নল।

‘গোলোন্দাজ’-এর পর আবারও ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাজি দেব। এবার পর্দায় ‘রঘু ডাকাত’ (Raghu Dakat) হিসেবে ধরা দেবেন তিনি। এই প্রসঙ্গে অবশ্য অভিনেতা দেবের মার্কশিটে একশোয় একশো দিয়েছেন পরিচালক। ধ্রবর মন্তব্য, “দেব ছাড়া আর কাকেই বা ভাবা যেত এই চরিত্রে? ওঁর চেহারার সুঠাম গড়ন এবং বলিষ্ঠ শারীরিক ভাষাই এক্ষেত্রে প্লাস পয়েন্ট যোগ করেছে।

আর তাই দেব ছাড়া রঘু ডাকাতের ভূমিকায় অন্য কাউকে কল্পনাই করতে পারিনি।” কালীপুজো উপলক্ষে ছবির ঘোষণা করেছিলেন, এবার ভাইফোঁটার পরদিন সোমবার সকালেই প্রকাশ্যে নিয়ে এলেন ‘রঘুডাকাত’-এর মোশন পোস্টার। যা দেখে দেব-অনুরাগীরা তো বটেই, পাশাপাশি দর্শকরাও উত্তেজনায় ফুটছেন।

মোশন পোস্টারেই দেখা গেল, ডাকাতরূপী দেবকে। মাথাভর্তি ঝাঁকড়া চুল। মাথায় ফেট্টি। খাটো ধুতির ওপরে চওড়া লাল কাপড়ের কোমরবন্ধনী। হাতে-পায়ে পরনে কড়া। দাউ দাউ করে জ্বলছে মশাল। আর ডাকাতদের সে কী উল্লাস! গা ছমছমে এই গল্প কবে দেখা যাবে পর্দায়? এখন থেকেই অপেক্ষায় দিন গুনছেন দর্শকরা।


সিনেমার নামেই বিষয়বস্তুর উল্লেখ। নীল বিদ্রোহের সময় ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে বাংলার ডাকাত সম্প্রদায় যে অদম্য সাহসিকতার সঙ্গে লড়েছিলেন, বন্দুকের নলের সামনে খড়্গহস্ত ডাকাতরাই কম্পন ধরিয়েছিলেন গোড়া সৈন্যদের বুকে. সেই অজানা কাহিনিই দেখা যাবে ‘রঘু ডাকাত’ ছবিতে। যৌথভাবে প্রযোজনা করছে এসভিএফ এবং দেব এন্টারটেইনমেন্ট ভেঞ্চার্স।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *