স’হ’বাসের যৌ’নতা খনিকের, কিন্তু স্বামীর অত্যা’চার সহ্য করা যায় না: নুসরত

লাইমলাইটে থাকতে এতটাই সিদ্ধহস্ত নুসরত যে কন্ট্রোভার্সি হোক কিংবা বিস্ফোরক মন্তব্য, তিনি সর্বদাই রয়েছেন। আসলে সাংসদ অভিনেত্রী নুসরত জাহানকে নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই।

গত কয়েকমাস ধরেই মিডিয়াকে এড়িয়ে চলছেন টলিপাড়ার হবু মা। সম্ভবত সেপ্টেম্বরেই আসতে চলছে ফুটফুটে সন্তান। ৭ মাসের সন্তানসম্ভবা টলি অভিনেত্রী নুসরত জাহান।

এবার মহিলাদের অধিকার বুঝে নেওয়ার লড়াইয়ে একেবারে সামনের সারিতে এসে দাঁড়ালেন নুসরত জাহান। স্বামীর সঙ্গে সহবাস খনিকের কিন্তু দাম্পত্য বিষাক্ত হলে কিংবা স্বামীর অত্যাচার মুখ বুজে সহ্য করা কখনওই সম্ভব নয়, কীসের ইঙ্গিত দিলেন অন্তঃসত্ত্বা নুসরত, বাড়ছে কৌতুহল।

নুসরত জাহান প্রেগন্যান্ট সেকথা সকলে জানলেও আসন্ন সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা। যদি এদেশে সিঙ্গল মাদার হওযা আইনত বৈধ, এবার সেই সাহসটাও দেখালেন সাংসদ অভিনেত্রী।

বর্তমানে একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে রয়েছেন টলিপাড়ার সাংসদ অভিনেত্রী। যদি প্রেগন্যান্সিতেও থেমে নেই তিনি। ৭ মাসের গর্ভের সন্তানকে নিয়েই একের পর এক নয়া চমক দিচ্ছে সাংসদ অভিনেত্রী।

এবার মহিলাদের অধিকার বুঝে নেওয়ার লড়াইয়ে একেবারে সামনের সারিতে এসে দাঁড়ালেন নুসরত জাহান। স্বামীর সঙ্গে সহবাস খনিকের কিন্তু দাম্পত্য বিষাক্ত হলে কিংবা স্বামীর অত্যাচার মুখ বুজে সহ্য করা কখনওই সম্ভব নয়, কীসের ইঙ্গিত দিলেন অন্তঃসত্ত্বা নুসরত, বাড়ছে জল্পনা।

অভিনেত্রী শোনালেন বিদ্রুপ এবং ঘৃণার পাত্র হয়ে নিজের জীবনের কথা, সিদ্ধান্তের কথা। তার মতে,কেবল সমাজের চোখরাঙানির ভয়ে মুখ বুজে থাকাটা কোনও মহৎ কাজ নয়। প্রতিবাদ না করলে নিজে কখনও ভাল থাকা যায় না।

সম্প্রতি নারীদের ক্ষমতায়ন নিয়ে সুর চড়ালেন টলিপাড়ার হবু মা নুসরত জাহান। তিনি বলেছেন, আমাকে আমার লড়াই করতে হবে। কেউ কারোর হয়ে গলা তুলবে না। সুতরাং লোক দেখানোর জন্য মিথ্যা ছলনার আশ্রয় ঠিক নয়।

নুসরতের মতে, স্বামী অত্যাচার করলেও সমাজের ভয়ে তা মুখে বুজে মেনে নেওযার। সকলের সামনে স্বামীর ভাবমূর্তি রক্ষার জন্য অন্যায় সহ্য করলে নিজের জীবনটাও হারিয়ে যাবে একদিন। নিজেদের ক্ষতগুলো লুকোতে মহিলারা নিজস্বতাকেই হারিয়ে ফেলে।

সমস্ত মহিলাদেরই নুসরত পরামর্শ দিয়েছেন, জীবন একটাই। মন খুলে সেটাকে উপভোগ করুন, যারা এরকম সমস্যায় রয়েছেন, তারা অবশ্যই প্রশাসনের দ্বারস্থ হন। নিজের ব্যক্তিগত জীবন দিয়েও সেটা করে দেখিয়েছেন নুসরত। বিয়ে এবং মাতৃত্ব নিয়ে এবার ধীরে ধীরে মুখ খুলছেন নুসরত জাহান।

অন্যদিকে রূপকথার বিয়েকে সহবাসের তকমা দিয়ে পুরো সমীকরণটাই এক মুহূর্তে বদলে দিয়েছেন নুসরত। তারপর তো রয়েছেই একাধিক সম্পর্ক-লিভ-ইন – বিবাহবিচ্ছেদ-যশের সঙ্গে নয়া সম্পর্ক। আসলে তার জীবনটাই এখন টলিপাড়ার ওপেন সিক্রেট।

সম্প্রতি পরিচালক সুদেষ্ণ রায়ের সঙ্গে গর্ভনিরোধক ওষুধের সুবিধা-র ফেসবুক পেজ থেকে লাইভে ছিলেন নুসরত। সেখানে ওষুধ সংক্রান্ত নানা কথার মাঝেই শোনা যায় মাতৃত্ব ও মহিলাদের ক্ষমতায়নের কথা।

নুসরত বলেছেন, বর্তমানে এই সময়টাতে সবসময় নিজের শরীরের খেয়াল রাখছি। নিজে খুশি ও পজিটিভ থাকার চেষ্টা করছি। আর যেটুকু কাজ করছি তার পুরোটাই অনলাইনে। তবে মাঝে কিছু বিজ্ঞাপনের ফোটোশ্যুট করেছি।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *