সমুদ্রে প্রায় অর্ধনগ্ন, স্ত’নের একাংশ দেখিয়ে উন্মুক্ত উরুতে সারা ঘুম কারলেন নেটিজেনদের

বি টাউনের গ্লাম গার্ল সারা আলি খান। তার আরো একটি পরিচয় তিনি নবাব পাতৌদি পরিবারের একমাত্র মেয়ে, সইফ আলি খান এবং অমৃতা সিং এর কন্যা। তবে নবাব পরিবারের মেয়ে নয় বরং নিজের কাজের দ্বারাই সারা জাকিয়ে বসেছেন বলিউডে।

বড় পর্দার পাশাপাশি সারা নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ অ্যাক্টিভ থাকেন। সারার হটনেসে পাগল তার অনুরাগীরা। স্লিম ফিট পারফেক্ট ফিগার অভিনেত্রীর। তবে প্রথম থেকে এমনটা মোটেই ছিল না। সারা নিজেই দু বছর আগে করণ জোহরের শো তে এসে জানিয়েছিলেন, সিনেমায় আসার আগে তার ওজন ছিল ৯৬ কেজি।

ছোটবেলা থেকেই ওভার ওয়েটের সমস্যা ছিলো সারার। মহিলাদের হরমোন জনিত সমস্যা পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিন্ড্রোম এর কারণে তার ওজন বৃদ্ধি হয়ে গিয়েছিলো বলে জানান নায়িকা।

তবে ধীরে ধীরে নিজেকে পরিবর্তন করেছেন সারা। নিজেকে স্লিম এবং ফিট রাখতে ছেড়েছেন পছন্দের পিৎস খাওয়া। ডায়েটের সাথে নিয়মিত শুরু করেছেন শরীরচর্চা। প্রতিদিন তিনি শুটিং এর ফাঁকে গরম জলে হলুদ মিশিয়ে খান। প্রতিদিন খাওয়ারের তালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন কার্বোহাইড্রেট এবং দুধ চিনি।


প্রতিদিন ঘুম থেকে ওঠার পর জিমে ঘাম ঝরানোর এর পর কফি দই প্রোটিন থাকে সারার ডায়েটের লিস্টে। সারার প্রতিদিনের ব্রেকফাস্ট লাঞ্চ ডিনারের মেনুতে থাকে ডিম এবং চিকেন।

সাধারণত শরীরের সৌন্দর্য ধরে রাখতে অনেকখানি কষ্ট করতে হয় বি টাউনের সকল অভিনেত্রীদের। কঠোর ডায়েটের মধ্যে দিয়ে গিয়েই নির্মেদ সুঠাম ফিগারের অধিকারিনী হন তারা।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *