শিল্পীরা সত্যিই দৈ’হিক সম্পর্কে জড়িয়েছেন যে ৩ সিনেমায়!

চলচ্চিত্র এমন এক জায়গা যেখানে বাস্তব জিনিসগুলোরই প্রতিফলন ঘটে। আর বাস্তব প্রতিফলন ঘটানোর জন্য চলচ্চিত্রের কলাকুশলীরা এমন অনেক কাজ করে থাকেন যা প্রশংসনীয়।

কিন্তু তাই বলে চরিত্রের প্রয়োজনে সরাসরি ক্যামেরার সামনেই দৈ’হিক সম্পর্ক মনে হয় একটু বেশি বাড়াবাড়ি। তবে অবাক লাগলেও এমনতা ঘটেছিল ৫টি সিনেমায়। জেনে নিন, সিনেমাগুলো কী কী।

সংস (Songs): ২০০৪ সালের এই ব্রিটিশ রোম্যান্টিক ছবিতে নায়ক-নায়িকার ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের সেই দৃশ্য ব্যাপক সাড়া ফেলে দিয়েছিল। ছবির নায়ক-নায়িকা বাস্তবেই ক্যামেরার সামনেই দৈ’হিক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন।

অ্যান্টিক্রাইস্ট (Antichrist): ভুতুড়ে এই ছবিতে যেমন ভয়ে গায়ে কাঁটা দেবে, ঠিক তেমনই এর যৌ’ন দৃশ্য বাড়িয়ে তুলবে শরীরের উষ্ণতা। বিনোদনে ভরপুর এই ছবি ২০০৯ সালে বক্স অফিসে দারুণ ব্যবসা করেছিল।

লাভ (Love): ২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল এই ফরাসি ছবিটি। যেখানে একাধিকবার অন্ত’রঙ্গ দৃশ্য দেখানো হয়েছে। তার উপর ছবিটি ছিল থ্রি ডি।

ফলে বড়পর্দায় রীতিমতো জীবন্ত হয়ে উঠেছিল সেসব দৃশ্য। যা উপভোগ করেছিলেন সিনেমাপ্রেমীরা।নিমফোম্যানিয়াক (Nymphomaniac): এই ছবিতে আবার ন’গ্নতা ও যৌ’নতাকে তুলে ধরেছিলেন নায়িকার ডামি।

নায়িকা নিজে মিলনের দৃশ্যে ছিলেন না। তাই সে সব দৃশ্যে তার শ’রীরকেই পর্দায় দেখানো হয়েছিল। ২০১৩ সালে মুক্তি পাওয়া এই ছবির এক-একটি দৃশ্য শরীরের উষ্ণতা বাড়িয়ে দিয়েছিল সিনেমাপ্রেমীদের।

ইন্টিমেসি (Intimacy): দুই অচেনা মানুষ যারা জড়িয়ে পড়েছিলেন শারীরিক সম্পর্কে। এই হল ছবির গল্প। আর শুধু ক্যামেরার সামনেই নয়, ছবির স্বার্থে অফ ক্যামেরাও একাধিকবার যৌ’নতায় লিপ্ত হন নায়ক-নায়িকা। ক্যামেরার সামনে নিজেদের অভিব্যক্তিকে আরও সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলতেই নাকি এই প্রয়াস।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *