যশ মধুমিতার অন্তরঙ্গ মূহুর্ত ব্যপক ভাইরাল

রবিবার স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মুক্তি পেল যশ দাশগুপ্ত ও মধুমিতা সরকারের ‘ও মন রে’। মুক্তির পর ইউটিউবে হইচই ফেলে দিয়েছে ‘যশমিতা’র এই নতুন মিউজিক ভিডিও।

যশমিতাকে নিয়ে প্রত্যাশা ছিলই, প্রত্যাশা মতোই কাজ করলেন যশ-মধুমিতা। ইতিমধ্যে মুক্তির তিন দিনের মধ্যেই ‘যশমিতা’র মিউজিক ভিডিয়ো ‘ও মন রে’র ভিউ সংখ্যা ৩০ লক্ষের গণ্ডি পার করে দিয়েছে।

‘বোঝা না সে বোঝে না’ সেই জনপ্রিয় জুটি পাখি অরণ্য কামব্যাক সত্যি সার্থক হয়েছে। এই জুটিকে আবার একসাথে দেখতে পেয়ে খুশিতে উচ্ছ্বসিত অনুগামীরা।

এই গানের অপেক্ষায় প্রহর গুনছিলেন যশমিতার ভক্তরা। এস ভি এফ এর ব্যানারে এবং বাবা যাদবের পরিচালনায় মুক্তি পেল যশমিতার ম্যাজিক।

এই জনপ্রিয় গানটি গেয়েছেন বাংলাদেশের গায়ক তনবীর ইভান। ২ রা আগস্ট কলকাতায় শুরু হয়েছিল এই মিউজিক ভিডিয়োর শ্যুটিং।

আর ১৩ দিনের মাথায় মুক্তি পেল এই ভিডিও। এই গানের মূল ইউএসপি ছিল তনভীর ইভানের মাদকতা মেশানো কন্ঠস্বর আর যশ-মধুমিতার না ভোলা রসায়ন।

তবে যশমিতার ফ্যানদের একটা আক্ষেপ ছিল। পাঁচ বছর পরে কাছে এসেও যশ-মধুমিতার দূরে যাওয়ায় কাহিনিতে কিছুটা হলেও মন খারাপ হয়েছে অনুরাগীদের।

তবে ‘মন সইয়ে’ এই নামেমিউজিক ভিডিয়োর নতুন পর্বের অপেক্ষায় আশায় বাঁধছেন তাঁরা। তবে এর মাঝেই যশ-মধুমিতার একাধিক ফ্যানপেজে ভাইরাল হয়েছে যশ মধুমিতার একাধিক অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি।

যেখানে একে অপরের ঠোঁটে ঠোঁট লাগিয়ে রোম্যান্সে মেতে উঠতে দেখা গিয়েছে ‘বোঝে না সে বোঝে না’ জুটিকে। তবে মিউজিক ভিডিয়োতে এরকম ভিস্যুয়াল ধরা পড়েনি।

সম্প্রতি প্রযোজনা সংস্থা এসভিএফ এর তরফে সামনে আনা হয়েছে ‘ও মন রে’র নেপথ্যের কাহিনি। সেখানেই যশমিতার শ্যুটিংয়ের মোহড়ার এই অন্তঃরঙ্গ দৃশ্য ধরা পড়েছে।

তবে মূল মিউজিক ভিডিয়োতে এই দৃশ্য ছেঁটে ফেলা হয়েছে। কিন্তু কেন? নীতি পুলিশদের কথা ভেবেই কি কিসিং সিন দেওয়া হয়নি। সেই প্রশ্নের উত্তর অবশ্য পাওয়া যায়নি।

তানভীর ইভানের মাদকতা মেশানো কন্ঠস্বর আর যশ-মধুমিতার না-ভোলা রসায়ন হিট হয়েছে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *