বোমা ফাটালেন কঙ্গনা; মহত্মা গান্ধীকে ক্ষমতা লোভী ও চালাক বলে আক্রমণ করে বসলেন

কঙ্গনা রানাওয়াতের (Kangana Ranaut) ২০১৪ সালে প্রকৃত স্বাধীনতা পাওয়ার বয়ান নিয়ে এখনও বিতর্ক থামেনি। আর এরই মধ্যে তিনি আরও একটি পোস্ট করে বিতর্ক উস্কে দিলেন। এবার কঙ্গনা সরাসরি মহত্মা গান্ধীকে (mahatma gandhi) আক্রমণ করে তাঁকে ক্ষমতার লোভী বলে আখ্যা দিয়েছেন।

কঙ্গনা নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে মহত্মা গান্ধীকে নিয়ে একটি দীর্ঘ বিতর্কিত পোস্ট করেছেন। কঙ্গনা নিজের প্রথম পোস্টে মহত্মা গান্ধীকে ক্ষমতার লোভী আর চালাক বলে আক্রমণ করেন। দ্বিতীয় পোস্টে লেখেন, মহত্মা গান্ধী চেয়েছিলেন ভগৎ সিংয়ের ফাঁসি হোক।

কঙ্গনা গান্ধীজিকে নিয়ে বিতর্কিত বয়ান দেওয়ার পাশাপাশি এও পরামর্শ দেন যে, মানুষ যেন নিজের নায়ককে বুদ্ধি দিয়ে চিনে নেয়। কঙ্গনা এখানেই থেমে না থেকে আরও লেখেন, তোমার যদি কেউ এক গালে চড় মারে, তাহলে অন্য গাল এগিয়ে দিলে স্বাধীনতা মেলে না।

কঙ্গনা লেখেন, ‘যারা স্বাধীনতা জন্য লড়ছিলেন, তাঁদের তো কিছু মানুষ মালিককে উপহার হিসেবে দিয়ে দিয়েছিল, কারণ ওদের সাহস ছিল না।”

কঙ্গনা আরও লেখেন, ‘উনি শুধু ক্ষমতা লোভী আর চালাক ছিলেন। উনি আমাদের শিখিয়েছেন, কেউ একগালে চড় মারলে আরেক গাল এগিয়ে দাও, এভাবেই তুমি স্বাধীনতা পেয়ে যাবে। কিন্তু এভাবে কেউ স্বাধীনতা পায় না, পায় শুধু ক্ষুদা। ভেবে চিন্তে বিবেচনা করে নিজের নায়ককে বেছে নাও।”

কঙ্গনা আরও লেখেন, ‘গান্ধীজি কখনই ভগৎ সিং আর নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর সমর্থন করেন নি। এমন অনেক প্রমাণ আছে যা বলবে গান্ধীজি ভগৎ সিংয়ের ফাঁসি চাইতেন। এর জন্য এখন আপনাকেই বিবেচনা করতে হবে যে, আপনি কাকে সমর্থন করবেন।”

কঙ্গনা আরও লেখেন, ‘সত্যি কথা বলতে, তাদের সবাইকে স্মৃতির বাক্সে তুলে রেখে বিশেষ দিনে শুভেচ্ছা জানানো বা তাদের জন্মবার্ষিকীতে স্মরণ করাই যথেষ্ট নয়। বরং এটা যেমন বোকামি তেমনি দায়িত্বজ্ঞানহীন। প্রতিটি মানুষের জন্য তার ইতিহাস এবং তার নায়ক সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।”

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *