বিয়ে করতে চেয়েও যে করানে বিয়ে করতে পরলেন না সালমান খান

আশি এবং নব্বইয়ের দশকের বলিউডের বিখ্যাত এবং সুন্দরী অভিনেত্রী সঙ্গীতা বিজলানি এখন একষট্টির দোরগোড়ায়। বলিউডে নিজের অসাধারণ অভিনয়ের পাশাপাশি পার্সোনাল লাইফ নিয়েও চর্চায় ছিলেন তিনি।

তার জন্ম হয় 9 জুলাই 1960 সালে মুম্বাইয়ের এক সিন্ধি পরিবারে। আসুন আজ আমরা আপনাদের বলি এই অভিনেত্রীর বিষয়ে কিছু কথা। সঙ্গীতা 16 বছর বয়স থেকেই মডেলিং করেন। পন্ডস্ এবং নিরমা ওয়াশিং পাউডার এর মত বিজ্ঞাপনেও তাকে দেখা গেছে। 1980 সালে মাত্র 21 বছর বয়সে সঙ্গীতা নিজের নামে মিস ইন্ডিয়ার খেতাব জয় করেছিলেন।

এরপরই বলিউডের দরজা তার জন্য খুলে যায়। কিন্তু তিনি বলিউডে যোগদান করেন তার 8 বছর পর। সংগীতার ডেবিউ 1988 সালে ফিল্ম “কাতিল” থেকে হয়।

এরপর ছয় বছরের ছোট সালমান খানের সাথে তার বন্ধুত্বের সৃষ্টি হয়, যেই বন্ধুত্ব হয় তো একটু বিশেষ ছিল। সূত্র মতে 1986 সালে তাদের সম্পর্কের শুরু হয় অর্থাৎ বলিউডে ডেবিউর আগেই। তখন বলিউডে সালমান ও সঙ্গীতা দুজনেই নতুন ছিলেন। দুজনের সম্পর্ক প্রায় দশ বছর চলে এবং বিয়ে ঠিক হয়। কার্ড পর্যন্ত ছেপে গিয়েছিল তাদের বিয়ের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বিয়ে হয় না।

সালমান খান নিজেই এক ইন্টারভিউতে এই কথার সত্যতা প্রমাণ করেন। এমনকি সঙ্গীতা নিজেও এক ইন্টারভিউতে জানিয়েছিলেন। সালমান খানের বই “Being Human” এ সঙ্গীতার বিষয়ে লেখা আছে।

তথ্য অনুযায়ী তাদের বিয়ে 27 মে 1994 সালে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এরপরই সালমান খানের সাথে সোমি আলির বন্ধুত্বের কারণে সালমানের ওপর রেগে যান সঙ্গীতা এবং সম্পর্ক ভেঙ্গে দেন।

এরপর 1996 সালে তৎকালীন ইন্ডিয়ান ক্রিকেট টিমের ক্যাপ্টেন মহম্মদ আজহারউদ্দিন কে বিয়ে করে নেন। যদিও সেই সময়ে মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন বিবাহিত ছিলেন। কিন্তু আজহারউদ্দিন সঙ্গীতাকে বিয়ে করতে চেয়ে ছিলেন। তাই তিনি তার প্রথম স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়ে সঙ্গীতাকে বিয়ে করেন 1996 তে।

কিন্তু 14 বছর পর 2010 সালে তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়। সঙ্গীতা বহুবছর বলিউড থেকে অনেক দূরে আছেন। কিন্তু তিনি তার ক্যারিয়ারে “ত্রিদেব”, “ইজ্জত”, “যুর্ম”, “যুগন্ধর”, “যোদ্ধা”, “খুন কা কার্জ”, “হাতেমতাই” এর মত অনেক সিনেমাতে কাজ করেছিলেন। কেমন লাগলো আপনাদের সঙ্গীতার বিষয়ে জেনে আমাদের জানান।।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *