বলিউডের ১ম সারির যে ৫ জন অভিনেত্রী একাধারে বাবা ও ছেলে দুজনের সাথেই রোমান্স করেছে

সিনেমা জগত মানেই এক রকমের ধাঁধা। তার মধ্যেকার জগত সম্পর্কে অনেকেরই বিশেষ কৌতূহল থাকে। মূলত চরিত্রই ফুটিয়ে তোলে সিনেমার গল্প। মানে শুধু সংলাপ বলা নয়।

সিনেমায় অভিনয় করতে গেলে অভিনীত চরিত্রকে আত্মস্থ করা অত্যাবশ্যক। আর অভিনয় ফুটিয়ে তোলার মাধ্যমেই শিল্পীর প্রতিভা প্রকাশ পায়। এমন অনেক প্রতিভা বান অভিনেতা-অভিনেত্রীদের সাক্ষী থেকেছে বলিউড।

আজ এমন কিছু অভিনেত্রীদের কথা এই প্রতিবেদনে আলোচনা করা হবে যাদের কাছে বয়স কেবল সংখ্যা মাত্র। তারা তাদের অভিনয় শৈলীর দ্বারা প্রমাণ করেছেন পর্দায় অভিনয়টাই আসল, বয়স সেখানে তুচ্ছ। তারা বরাবরই এভারগ্রিন।

বলিউডে এমন কিছু অভিনেত্রীও আছেন যারা পর্দায় চুটিয়ে প্রেম করেছেন বাবা ও ছেলে উভয়ের সাথেই। তাদের বয়স তাদের ক্যারিয়ারে বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। এই সকল অভিনেত্রীরা একসময় যেমন বাবাদের সাথে পর্দা ভাগ করে নিয়েছিলেন ঠিক তেমনই পরবর্তী সময়ে উক্ত অভিনেতাদের ছেলেদের সাথেও পর্দায় অভিনয় করেছেন।

১. কাজল আগারওয়াল: দক্ষিণ ভারতীয় জনপ্রিয় এক অভিনেত্রী অভিনেত্রী হলেন কাজল আগারওয়াল। তিনি দক্ষিণী সিনেমার পাশাপাশি বলিউডেও বিশেষ ভাবে জনপ্রিয়। এই অভিনেত্রী দক্ষিণী সিনেমা জগতের জনপ্রিয় অভিনেতা চিরঞ্জীবী ও তার ছেলে অভিনেতা রাম চরণ উভয়ের সাথেই পর্দা ভাগ করে নিয়েছেন। অভিনেতা চিরঞ্জীবীর সাথে জুটি বেঁধে ‘কয়েদি নং ১৫০’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন এবং রাম চরণের সাথে তার অভিনীত একটি ছবি হল ‘আচার্য’।

২. শ্রীদেবী: বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীদেবীর অভিনয় জগতে আত্মপ্রকাশ এক তামিল চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। কিন্তু তখন তার বিশেষ পরিচিতি ঘটেনি। তিনি জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন হিন্দি সিনেমার মাধ্যমে। ৬০ এর দশকে তেলেগু অভিনেতা আক্কিনেনি নাগেশ্বরা রাও এর সাথে শ্রীদেবী এক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন, প্রসঙ্গত সেই অভিনয় দর্শক মহলে ব্যাপক সমাদৃতও হয়েছিল। এরপর ১৯৯২ সালে ‘খুদা গাওয়াহ’ ছবিতে অমিতাভ বচ্চন এবং আক্কিনেনি নাগেশ্বরা রাও এর ছেলে নাগার্জুনের সাথে শ্রীদেবী অভিনয়ে করেছিলেন।

৩. জয়া প্রদা: ৮০ ও ৯০ দশকের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী ছিলেন জয়া প্রদা। তাকে বলিউড জগতের এক উজ্জ্বল নক্ষত্রও বলা যেতে পারে। জয়া বলিউডের খ্যাতনামা অভিনেতা ধর্মেন্দ্র ও তার বড়ো ছেলে সানি দেওয়াল উভয়ের সাথেই পর্দায় অভিনয় করেছেন। পর্দায় উভয়ের সাথেই জয়ার রসায়ন ছিল প্রশংসনীয়। অভিনেতা ধর্মেন্দ্রর সাথে জয়া প্রদা যেসব ছবি করেছেন তার মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় এক ছবি হল ‘শেরখান’। ধর্মেন্দ্রর বড়ো ছেলে সানি দেওয়ালের সাথেও জয়া প্রদার অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে একটি হল ‘ম্যায় তেরা দুশমন’।

৪. মাধুরী দীক্ষিত: বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম মাধুরী দীক্ষিত। বলিউডের ড্রিম গার্ল নামেও পরিচিত তিনি। বয়স বেড়েছে ঠিকই কিন্তু তার গ্ল্যামারের রেশ এতটুকুও কমেনি। অভিনেত্রী ‘দয়াবান’ ছবিতে একসময় বিনোদ খান্নার সাথে জুটি বেঁধেছিলেন। ছবিতে বিনোদ খান্না ও মাধুরীর এক গভীর চুম্বনের দৃশ্য ছিল। এর প্রায় ৯ বছর পর অভিনেত্রী বিনোদ খান্নার ছেলে অক্ষয় খান্নার সাথে ‘মহাব্বতে’ ছবিতেও অভিনয় করেছিলেন।

৫. শিল্পা শেট্টি কুন্দ্রা: বলিউডের এক অন্যতম এভারগ্রিন এবং প্রতিভাবান অভিনেত্রী হলেন শিল্পা শেঠি কুন্দ্রা। সৌন্দর্যে এই বয়সেও অনেক বলিউড তারকাকেই টেক্কা দেন এই অভিনেত্রী। শিল্পা শেঠি যেমন একদিকে বলিউডের বিগ-বি অমিতাভ বচ্চনের সাথে পর্দায় অভিনয় করেছেন, তেমন ই আবার অন্যদিকে অমিতাভ বচ্চনের ছেলে অভিষেক বচ্চনের সাথেও সিনেমায় অভিনয় করেছেন। বলা ভালো, এই দুই অভিনেতার সাথেই অভিনেত্রীর রসায়ন খুব ভালো ছিল।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *