বর্ধমানের এক সাধারণ মেয়ে থেকে সুপারহিট নায়িকা, শুভশ্রীর জীবনকাহিনী হার মানাবে সিনেমার গল্পকেও

বর্তমানে টলিউডের (Tollywood) অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন শুভশ্রী গাঙ্গুলি (Subhashree Ganguly)। কিন্তু জানেন কি! কিভাবে তিনি টলিউডের টপ নায়িকাদের একজন হয়ে উঠলেন? সেই গল্পই আজ আপনাদের বলবো।

শুভশ্রীর শুরুর যাত্রাটা খুব একটা সহজ ছিল না। আজ থেকে বছর পনেরো আগে প্রতিদিন স্ট্রাগল ছিল তাঁর জীবনে।

সুদূর বর্ধমান থেকে কলকাতায় এসেছিলেন অভিনেত্রী হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে। শুভশ্রী (Subhashree Ganguly) ২০০৬ সালে ‘আনন্দলোক নায়িকার খোঁজ’ জেতেন।

আর সেখান থেকে যাত্রা শুরু করে ২০০৮ সালে ওডিয়া ফিল্ম ‘মাতে লা লাভ হেলারে’ দিয়ে নিজের অভিনয় জীবন শুরু করেন তিনি। কেরিয়ারের শুরুতে কেবল মা এবং দিদিকেই পাশে পেয়েছিলেন শুভশ্রী। কারণ তাঁর পরিবারের সকলেই চাকুরীজীবী। সেই পরিবারের মেয়ে নায়িকা হবে, এটা প্রথমে কেউ মেনে নেননি।

প্রতিদিন বর্ধমান থেকে কলকাতা এসে অডিশন দিয়ে আবার বারি ফেরা সহজ কথা নয়। তারপর হঠাৎই প্রভাত রায়ের ‘পিতৃভূমি’ সিনেমায় অডিশন দেওয়া পর চান্স পেয়ে যান শুভশ্রী। এই ছবিতে জিতের (Jeet) বোনের ভূমিকায় দেখা যায় তাঁকে।

সেই সিনেমায় জিতের বিপরীতে নায়িকা হিসেবে ছিলেন ‘স্বস্তিকা মুখার্জী’ (Swastika Mukherjee)। তার পরের বছর ২০০৮ সালে ‘বাজিমাত’ সিনেমায় সোহমের বিপরীতে নায়িকা হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন শুভশ্রী। এমনকি সেবছর বাংলা ইন্ডাস্ট্রির শ্রেষ্ঠ নবাগতার পুরস্কারও পান শুভশ্রী।


এরপর আর ঘুরে তাকাতে হয়নি শুভশ্রীকে। একের পর ব্লকবাস্টার সিনেমা দিয়েছেন তিনি। এই বছর শুভশ্রী অভিনীত কৌশিক গাঙ্গুলির ‘ধূমকেতু’ সিনেমা হলে আসার কথা। এছাড়া জি বাংলায় ‘ড্যান্স বাংলা ড্যান্স’-এর বিচারকের আসনে রয়েছেন এখন শুভশ্রী।


এখন তাঁর ভরা সংসার। পরিচালক রাজ চক্রবর্তীকে (Raj Chakraborty) বিয়ে করেছেন। তাঁদের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে, নাম ইউভান (Yuvaan)। সেও ইতিমধ্যেই খুব জনপ্রিয়।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *