পুনম নিজেই তার যৌ;নাঙ্গ দেখিয়েছেনঃ গহনা

রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে পুনম পাণ্ডের অভিযোগ নিয়ে ক্ষুব্ধ গহনা বশিষ্ঠ। প;র্ন-কাণ্ডে রাজের গ্রেফতারির পর মডেল-অভিনেত্রী গহনা তাঁকে সমর্থন করে বলেছিলেন,

‘‘প;র্নের সঙ্গে যৌ;ন উদ্দীপক ছবিকে গুলিয়ে ফেলা ঠিক নয়। রাজ এবং আমি একই অভিযোগে অভিযুক্ত।’’

তাঁর দাবি, রাজের অ্যাপে যে ভিডিয়োগুলি রয়েছে, তার একটিও প;র্ন নয়। একই সঙ্গে রাজের বিরুদ্ধে মুখ খোলার জন্য আ;ক্রমণ করলেন আরও এক মডেল-অভিনেত্রী পুনমকে।

গহনার মতে, পুনম নিজের যে সব ভিডিয়ো বানিয়েছেন, তা ওঁর স্বামীর শ্যুট করা। সেখানে তিনি নিজের যৌ;নাঙ্গ দেখিয়েছেন।

গহনার বক্তব্য, ‘‘মহিলা নিজেই নিজের কাপড় খোলে। তাতেও কি রাজের দোষ? রাজ ওকে বলেছে এ সব করতে? যে নিজেই এই ধরনের ভিডিয়ো তৈরি করে, তার মুখে এ সব মানায় না। পুনমের নিজের অ্যাপে তো রাজের কোনও ভূমিকা নেই।’’ গহনার মতে, পুনম এই পরিস্থিতির সুযোগ নিচ্ছেন।

২০১৯ সালে পুনম ও রাজ দু’জনে মিলে একটি অ্যাপ বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। রাজের সংস্থার সঙ্গেই হাত মিলিয়েছিলেন পুনম।

অ্যাপের নাম দেওয়া হয়েছিল পুনমের নামে। কিন্তু টাকার ভাগ বাটোয়ারায় অসঙ্গতি দেখে চুক্তি ভঙ্গ করে বেরিয়ে যান পুনম।

কিন্তু অভিনেত্রীর কিছু ছবি ও ভিডিয়ো রাজের সংস্থার কাছে থেকে যায়। অভিযোগ ওঠে, বিনা অনুমতিতে পুনমের ন;গ্ন ভিডিয়ো, ছবি প্রকাশ করে দিতে শুরু করেন রাজের সংস্থার কর্মীরা।

এমনও অভিযোগ ওঠে, পুনমের নম্বর ফাঁস করে দিয়ে ছবির তলায় লেখা হত, ‘আমি ফাঁকা আছি। কথা বলতে হলে ফোন করতে পারো। আমি তোমার সামনে পো;শাক খুলতে পারি।’

পুনম দাবি করেছিলেন, নম্বর ফাঁস হয়ে যাওয়ার পরে রাতবিরেতে হাজার হাজার ফোন আসত তাঁর কাছে। তাঁকে প;র্ন ছবি পাঠানো হত মেসেজ করে।

অ;শ্লী;ল কথা বলতেন অনেকেই। তিন মাসের জন্য দেশ ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন পুনম। তাঁর কথায়, ‘‘ভেবেছিলাম, তিন মাস কেটে গেলে সব বন্ধ হয়ে যাবে।

কিন্তু দেশে ফেরার পর আবার ফোন আসতে থাকে আমার কাছে। মাঝে মাঝে উল্টো দিক থেকে কেবল নিঃশ্বাস শুনতে পেতাম। আমার বাড়ির ঠিকানাও জানত কেউ কেউ।’’ তার পরেই ভয়ের চোটে নম্বর পাল্টে ফেলেন পুনম।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *