পরকীয়ায় প্রেমিকের সাথে পালিয়ে গেল বিবাহিতা স্ত্রী; লজ্জায় অপমানে আত্মহ’ত্যা করলেন স্বামী

ভালোবেসে ঘর বেঁধেছিলেন দু’জনে। কিন্তু বিয়ের পর অন্য যুবকের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন স্ত্রী।

এতটাই বেপরোয়া হয়ে গিয়েছেন যে, প্রেমিকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি দেখাতেও পিছুপা হননি! লজ্জায়, অপমানে শ্বশুরবাড়ি গিয়ে আত্মহত্যা করলেন স্বামী। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানে কালনায়।

জানা গিয়েছে, মৃতের নাম সুদেব দে। বাড়ি, কালনার বাঘনা পাড়ায় খাসপুর গ্রামে। প্রায় দু’দশক আগে গ্রামেরই মেয়ে টুম্পাকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন তিনি। ওই দম্পতির এক কন্যাসন্তান রয়েছে।

মেয়ের বিয়ের পর কর্মসূ্ত্রে গ্রামে ছাড়েন টুম্পার বাবা। এখন কালনা শহর লাগোয়া শ্বাসপুর গ্রামে থাকেন তিনি। সেখানকার এক যুবকের সঙ্গে টু্ম্পা পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়েছেন বলে অভিযোগ।

এমনকী, প্রেমিকের সঙ্গে দু’বার পালিয়ে গিয়েছিলেন তিনি! কোনওমতে বুঝিয়ে-সুঝিয়ে স্ত্রীকে ফিরিয়ে এনেছিলেন সুদেব। ফের দু’জনে সংসার করছিলেন।

তাহলে? অভিযোগ, স্বামীর কাছে ফিরে এলেও টুম্পার মন পড়েছিল প্রেমিকের কাছেই! শুধু তাই নয়, প্রেমিকের সঙ্গে অন্তরঙ্গ ছবি সুদেবকে দেখান তাঁর স্ত্রী। এরপর সকলের সামনে ওই যুবকের সঙ্গে ফের ঘর ছাড়েন! তাতেই যারপরনাই অপমানিত ও লজ্জিত বোধ করেন ওই যুবক।

গতকাল, সোমবার রাতে শ্বশুরবাড়িতে সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। সুইসাইড নোটে লিখে যান, ‘আমার মৃত্যুর এই বাড়ি বা অন্য় কেউ দায়ী নয়।

আমি স্বেচ্ছায় লজ্জায় অপমানে এই পথ বেছে নিতে বাধ্য হলাম’। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিস। এলাকায় শোকের ছায়া।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *