ড্রাইভারের সঙ্গে পরকীয়া!! গুরুতর অভিযোগ বিধায়ক চন্দনার বিরুদ্ধে।

পরকীয়া, দলবদল- বিগত কয়েকদিন ধরে এই দুই বিতর্কে জড়িয়েছে শালতোড়ার BJP বিধায়ক চন্দনা বাউরির নাম। কিন্তু, পরকীয়া বিতর্কে আগে একবার মুখ খুললেও দলবদলের জল্পনা নিয়ে চুপ ছিলেন এই নেত্রী। এবার এই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন তিনি।

কী বলেছেন চন্দনা?
চন্দনা বাউরি বলেছেন, ‘একাধিক ভুয়ো জল্পনা ছড়ানো হচ্ছে। আমি আমার কেন্দ্রের সকলের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, আমি আপনাদের আশির্বাদে বিধায়ক হয়েছি। আপনাদের পাশে ছিলাম আছি থাকব। এভাবে BJP-কে আটকানো যায় নি, যাবে না। যে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে সেগুলি যুক্তিহীন।’ এদিন নিজের বক্তব্যের অন্তিম অংশে এই বিধায়ক বলেন, ‘BJP জিন্দাবাদ, নরেন্দ্র মোদী জিন্দাবাদ’। অর্থাৎ তিনি নিজের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে স্পষ্ট বুঝিয়ে দিয়েছেন, BJP-তেই থাকছেন তিনি।

শুভেন্দুর দাবি…
বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেছিলেন, চন্দনা বাউরি সহ একাধিক BJP বিধায়ককে দলত্যাগের জন্য রাজ্য শাসকদলের থেকে চাপ দেওয়া হচ্ছে। এদিকে, জল্পনা ছড়িয়েছিল তবে কি BJP ছেড়ে তৃণমূলের পথে পা বাড়ালেন চন্দনা? কিন্তু, এই লাইভে যাবতীয় বিতর্কে জল ঢেলেছেন শালতোড়ার বিধায়ক।

পরকীয়া বিতর্ক…
চন্দনা বাউরির সঙ্গে তাঁর গাড়ির চালকের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। অভিযোগ, BJP বিধায়ক চন্দনা বাউরির পরিবারে গাড়ির চালকের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে বহুদিন ধরে বিধায়কের বাড়িতে অশান্তি চলছিল। চন্দনার পরিবারে স্বামী শ্রাবণ বাউরি এবং তিন শিশু সন্তান রয়েছে। এই খবর সামনে আসতেই শোরগোল পড়ে যায় বিধানসভা এলাকায়। এদিকে চন্দনা বাউরির গাড়ি চালকের স্ত্রী বিধায়কের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তাঁর অভিযোগ, স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও চন্দনাকে বিয়ে করেছেন তাঁর স্বামী।

আত্মপক্ষ সমর্থনে চন্দনা…
পরকীয়া বিতর্ক সামনে আসার পরেই একটি ফেসবুক লাইভে এই যাবতীয় জল্পনা মিথ্যা বলে দাবি করেছিলেন চন্দনা। তিনি বলেন, ‘যে সব তথ্য আমার বিষয়ে রটানো হচ্ছে, তা সম্পূর্ণ অপপ্রচার। বিরোধী দলের তরফে এই ধরণের কুৎসা রটানো হচ্ছে। আমার পারিবারিক সমস্যা আমি থানায় মিটিয়ে এসেছি। আমি চিরকাল শালতোড়ার মানুষের সঙ্গেই থাকব। মানুষকে অনুরোধ এই কুৎসায় কান দেবেন না।এর আগেও আমার নামে একাধিক অপপ্রচার চালিয়েছে বিরোধীরা। আমার নামে নিখোঁজ পোস্টার দেওয়া হয়েছে। আমার বেতন ৮২ হাজার টাকা বলে গুজব রটানো হয়েছে। কিন্তু, এগুলি সবই মিথ্যে।’

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *