কেঁদে কেঁদে কয়েদিদের কাছে যে ১টি অনুরোধ করলেন শাহরুখ খান

মুম্বাইয়ের আর্থার রোডের জেলে ছেলে আরিয়ানকে দেখে এলেন ‘বলিউড বাদশা’ শাহরুখ খান। এ সময় বাবার কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন আরিয়ান।

সুপারস্টার বাবাও আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। ছেলেকে কারামুক্ত করতে না পেরে নিজেও ‘দুঃখ প্রকাশ’ করেন।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় সময় সকাল ৯টায় কারাগারে পৌঁছান শাহরুখ। সঙ্গে ছিল আইনজীবীর একটি দল। প্রায় ১৮ মিনিট অবস্থানের পর তারা জেল থেকে বের হন।

জেলে শাহরুখ-আরিয়ানের মধ্যে কী কথা হয়েছে তা কারা সূত্রে প্রকাশ করেছে ভারতীয় কয়েকটি সংবাদমাধ্যম। বলিউড লাইফ তাদের প্রতিবেদনে বলছে, আরিয়ান বাবাকে দেখে বেশ কয়েকবার বলেন, ‘আমি দুঃখিত’। উত্তরে শাহরুখ বলেন, ‘আমি তোমাকে বিশ্বাস করি… আমি দুঃখিত।’

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, শাহরুখ ছেলের কাছে জানতে চান, সে কিছু খেয়েছে কি না। আরিয়ান না বলার পর, শাহরুখ জেলারকে জিজ্ঞেস করেন তাকে কিছু খাওয়ানো যাবে কি না।

আদালতের অনুমতি ছাড়া এমনটা সম্ভব নয় বলে জানানো হয় বলিউড সুপারস্টারকে। তারপর শাহরুখ খান অন্য কয়েদিদের তার ছেলের দেখাশোনা করার জন্য অনুরোধ জানান।

জানা গেছে, কারাগারে শাহরুখ কোন বাড়তি সুবিধা পাননি। ছেলেকে দেখেই কাঁদতে শুরু করেন শাহরুখ, আরিয়ানও তাই।

মাদক মামলায় মুম্বাই সেশন কোর্ট আরিয়ান খানের জামিন আবেদন খারিজ করার পর মুম্বাইয়ের হাইকোর্টে একই আবেদন করেছেন তার আইনজীবীরা। আগামী ২৬ অক্টোবর আরিয়ানের জামিনের শুনানির দিন নির্ধারিত রয়েছে।

মাদককাণ্ডে দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা জেরার পর গত ৩ অক্টোবর বিকেলে আরিয়ান খানকে গ্রেপ্তার দেখায় নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। আরিয়ান খানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি এনডিপিএসের ৮সি, ২০বি, ২৭, ২৯ ও ৩৫ ধারায় মামলা করা হয়েছে।

২৩ বছর বয়সী আরিয়ান খানের পক্ষে আইনি লড়াই চালাচ্ছেন মুম্বাইয়ের অন্যতম শীর্ষ আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডে ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অমিত দেশাই।

মুম্বাইয়ের উপকূলে একটি প্রমোদতরী থেকে ২ অক্টোবর রাতে আরিয়ান খানসহ আট জনকে আটক করে এনসিবি। যাত্রীর বেশে কর্ডেলিয়া নামে বিলাসবহুল ওই প্রমোদতরীতে চেপে বসেছিলেন এনসিবির গোয়েন্দারা।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *