এবার আসল দোষী ব্যক্তির নাম সরাসরি প্রকাশ করলেন শিল্পা শেট্টি

গত কয়েকদিন ধরেই পেজ থ্রির পাতা সরগরম শিল্পা শেট্টির (Shilpa Shetty) স্বামী রাজ কুন্দ্রার (Raj kundra) প;র্ন ব্যাবসা নিয়ে।

এই অভিযোগের ভিত্তিতেই সোমবার রাতে অর্থাৎ ১৯ শে জুলাই মুম্বই পুলিশ গ্রে;ফতার করে শিল্পা পতিকে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি প;র্ন বানিয়ে বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে তা ছড়িয়ে দেন।

প;র্নকান্ডে অভিযুক্ত রাজ কুন্দ্রার তদন্তে এদিন পুলিশের জেরার মুখে পড়েছিলেন অভিনেত্রী শিল্পা শেট্টি।

তবে সংবাদ সংস্থা ANI সূত্রে খবর, টানা ৬ ঘন্টা ধরে জেরা করা হয় শিল্পাকে। জেরায় স্বামীকে একেবারেই নির্দোষ বলে দাবি করেছেন অভিনেত্রী।

তার মতে, রাজ কুন্দ্রা এ;রোটিক ভিডিও বানাতে পারেন কিন্তু প;র্ন কান্ডের সাথে তিনি জড়িত থাকতে পারেন না। আর এ;রোটিক বা সাহসী ভিডিওকে প;র্ন হিসাবে মানতে নারাজ শিল্পা।

আরও জানা যাচ্ছে, পুলিশকে শিল্পা জানান তার স্বামীর হ;টশ;টের সম্পর্কে তিনি বিশেষ কিছুই জানতেন না। বরং তিনি তার স্বামীকে নির্দোষ বলে, প;র্ন কান্ডে অভিযুক্ত করেছেন প্রদীপ বক্সী নামের এক ব্যক্তিকে, যিনি সম্পর্কে রাজ কুন্দ্রার জামাই বাবু।

তিনি সর্বোতভাবেই স্বামীর পাশে আছেন এমন বার্তা দিয়ে, এ;রোটিক ভিডিও এবং প;র্নের পার্থক্যও বুঝিয়ে দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, সোমবার রাতে রাজ কুন্দ্রাকে গ্রে;ফতারের পর আপাতত জেলেই রাখা হয়েছে। বাইকুল্লার জেলে আগামী ২৩ শে আগস্ট পর্যন্ত থাকবেন, এমনটাই জানা যাচ্ছে।

এদিকে শিল্পার উপরেও কড়া নজর রাখছে মুম্বই পুলিশ। বহু বছর পর বড় পর্দায় ‘হাঙ্গামা টু’ ছবির হাত ধরে কামব্যাক করেছিলেন শিল্পা। কিন্তু তার আগেই ঘটে গেল এত বড় বিপত্তি। নে;টিজেনদের অনেকেই তার ছবি বয়কটের ডাক দিয়েছে।

এই গোটা ঘটনায় জর্জরিত শিল্পার জীবন। এই কান্ডের জেরে ক্ষে;পে রয়েছে নে;টিজেন মহল। এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় শিল্পা লেখেন, ‘আমি যোগে বিশ্বাস করি এবং অনুশীলন করি, যো;গশা;স্ত্রে বলা হয়, জীবনের একমাত্র উপস্থিতি হচ্ছে বর্তমানে।

হাঙ্গামা ২ একটা গোটা টিমের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল, তাঁরা সকলে মিলে অসম্ভব খেটে এই ছবিটা বানিয়েছে এবং এই ছবিটার সমস্যায় পড়া উচিত নয়’।

তিনি আরও জানান, ‘আমি সকলের কাছে হাত জোর করে আবেদন জানাচ্ছি, এই ছবির সঙ্গে যুক্ত প্রতিটা মানুষের স্বার্থে পরিবারের সঙ্গে বসে হাঙ্গামা ২ দেখুন, এবং মন খুলে হাসুন’।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *