আর্থার রোড-এ মানুষের ঢল, উৎসবের মেজাজে ‘মন্নত’, ‘রাজপুত্র’কে স্বাগত

২৬ দিনের দীর্ঘ অপেক্ষা পেরিয়ে অবশেষে ঘরে ফেরা। আর্থার রোড জেলের বন্দিদশা কাটিয়ে বেরিয়ে এলেন আরিয়ান খান।

ভিড় কাটিয়ে চেপে বসলেন বহুমূল্য সাদা গাড়িতে। গন্তব্য ‘মন্নত’। শনিবার সকালে খুব সহজে গড়ায়নি গাড়ির চাকা। জেল থেকে বাড়ির রাস্তা— পুরোটা জুড়েই সহস্র মানুষের ঢল। রোদে পুড়ে অপেক্ষা করেছেন শাহরুখ-অনুরাগীরা।

কিং খানের ছেলেকে শুধু এক ঝলক দেখতে চেয়ে। আবেগ ধরে না রাখতে পেরে গাড়ির পিছনেও ছুটেছেন অনেকে। এ সব কিছু কাটিয়ে এগিয়েছে গাড়ি। ঘরে ফিরেছেন ঘরের ছেলে।

তত ক্ষণে শাহরুখের অট্টালিকার সামনেও উৎসব। হাজার হাজার অনুরাগীর ভিড়। মনে উচ্ছ্বাস, চোখে আবেগ। ‘বাদশা’-র চিন্তা কাটল যে! শাহরুখ-আরিয়ানের ছবি দেওয়া ব্যানার হাতে গলা ফাটাচ্ছে এক দল।

তাতে লেখা, ‘তোমাকে স্বাগত রাজপুত্র।’ শাহরুখের পাশাপাশি তাঁর পরিবারের সঙ্গেও যেন একসূত্রে বাঁধা ভক্তরা। শনিবার সকাল থেকেই আরিয়ানের পথ চেয়ে এক সাধু বসে রয়েছেন ‘মন্নত’-এর সামনে। এক মনে হনুমান চালিসা পড়ে চলেছেন। ২৩ বছর বয়সি তারকা-সন্তানের মঙ্গল কামনায়।

আরিয়ান না ফিরলে দীপাবলিতে আলো জ্বলবে না ‘মন্নত’-এ। উৎসবের উদ্‌যাপনে মেতে উঠবে না পরিবার। ছেলের অনুপস্থিতিতে হেঁসেলে তৈরি হবে না ক্ষীর। এমনই ধনুকভাঙা পণ করেছিলেন আরিয়ানের মা গৌরী।


দিনরাত ঈশ্বরের কাছে ছেলের জন্য প্রার্থনা করেছেন তিনি। অবশেষে ইচ্ছেপূরণ। ছেলে ফিরে এলেন তাঁর কাছে। আরিয়ানের মুক্তির খবর পেয়ে শুক্রবার রাতেই খুশির আলোতে সেজেছে ‘মন্নত’। প্রায় চার সপ্তাহ পর অবশেষে ছেলেকে কাছে পেলেন শাহরুখ-গৌরী। তাঁদের খুশিতে চোখে জল ‘বাদশা’-র অনুরাগীদের।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *